চেয়ারম্যানের কথা


একটি দেশের অগ্রগতির সবচেয়ে বড় ধারক ও বাহক হচ্ছে সুস্থ্য জীবন এবং আধুনিক জ্ঞান বিজ্ঞান সম্পন্ন দক্ষ মানুষ। আর সেই মানুষকে সুস্থ্য সবল রাখার জন্য প্রয়োজন দক্ষ ডাক্তার এবং সহায়ক জনবল। স্বাস্থ্য সহায়ক দক্ষ টেকনোলজিস্ট তৈরি করার মুল দায়িত্ব হলো হেলথ ইনস্টিটিউটগুলোর।

আমাদের দেশের ডাক্তারদের তুলনায় স্বাস্থ্য সহায়ক জনবল অপ্রতুল। তাই স্বাস্থ্য সেবাকে মানুষের দোর গোড়ায় পৌঁছে দেয়ার জন্য গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার বেসরকারি ভাবে হেলথ ইনস্টিটিউট স্থাপনের যে বাস্তব পদক্ষেপ গ্রহণ করে, তারই আলোকে সাইক গ্রুপ পরিচালিত “সাইক ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল টেকনোলজি” একটি সয়ং সম্পূর্ণ মেডিকেল ইনস্টিটিউট। এখানে যেমন দক্ষ টেকনোলোজিস্ট গড়ে তোলা হয় তেমনি সহকারী ডাক্তার, নার্স, ফিজিওথেরাপিস্ট, তৈরি করা হয়।

সাইক ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল টেকনোলজি স্থাপনের প্রথম বছর থেকেই অনুমোদিত সকল আসনেই শিক্ষার্থী ভর্তি করতে সক্ষম হয়। সাইক ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল টেকনোলজি বিভিন্ন ধাপে শিক্ষার গুনগত মান বজায় রেখে Diploma in Medical Technology ছাত্র ছাত্রীদের সকল সুযোগ সুবিধা পরিপূর্ণ করে উচ্চতর শিক্ষার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে B.Sc in Health Technology Course (Lab Medicine এবং Physiotherapy) কোর্স চালু করে।

এক কথায় বিভিন্ন আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করার মাধ্যমে স্বাস্থ্য সেবার মান উন্নয়নের জন্য দক্ষ টেকনোলজিষ্ট, নার্স, সহকারী ডাক্তার, ফিজিওথেরাপিস্ট দরকার, এই চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে সাইক গ্রুপ পরিচালিত সাইক ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল টেকনোলজি সরকারের বাস্তব সম্মত সিদ্ধান্তকে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নিরলস ভাবে কাজটি করে যাচ্ছে।

(সোহেলী ইয়াছমিন)
চেয়ারম্যান
সাইক ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল টেকনোলজি

TOP